শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ০২:১৫ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ইউটিউব চ্যানেলে প্রতিবন্ধী নারীদের সাক্ষাৎকার নিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা প্রতারণার অভিযোগ শুরবাড়ি বেড়াতে এসে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা : জামাই রফিকুল গ্রেফতার সুদ কারবারীদের নির্যাতনে স্ত্রী করেছেন আত্মহত্যা ভিটেবাড়ি হারিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন শিক্ষক বানারীপাড়ায় ব্রিজ যাচ্ছে খালে,নজরে আসেনি প্রশাসন বা জনপ্রতিনিধিদের নিজ সন্তানরা বাবাকে ফেলে রাখল গোয়াল ঘরে,পুলিশের হস্তক্ষেপে ঘরে জায়গা পেলেন বৃদ্ধ জায়েদ-পপির বিয়ের গুঞ্জন কেশবপুরে যৌত্যুকের বলির শিকার নব-বধূ সালমা পশ্চিম পাড়ায় হযরত আবু বক্কর (রাঃ) জামে মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু আমি মেজর সিনহাকে কখনো দেখিনি,চিনিও না : কোবরা চালককে অচেতন করে অটোবাইক নিয়ে পালানোর সময় নারী সহ আটক ৩

আবারো ভাঙনের মুখে পদ্মা

জাহাঙ্গীর হোসেন জুয়েল কুষ্টিয়া প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৫ জুন, ২০২০
  • ৯৭ জন দেখেছেন

পদ্মা নদীর কুষ্টিয়া অংশে আবারো নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। একের পর এক ঢেউ এসে নদী গর্ভে বিলীন হচ্ছে ফসলি জমি, বসত বাড়িসহ অনান্য স্থাপনা। ইতিমধ্যেই ঘরবাড়ি ও ফসলি ক্ষেত নদীতে হারিয়ে সর্বশান্ত প্রায় কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার তালবাড়ীয়া সবজিপাড়া এলাকার হাসান আলী। সর্বনাশা পদ্মা তার ফসলি জমি গ্রাস করে নিয়েছে। ঘরবাড়ি সরিয়ে নিলেও সেটাও আবারও ভাঙনের কবলে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

স্থানীয় হাসান আলী জানান, গত বছর এই নদীর ভাঙনে বাড়ি ঘর পানিতে চলে গেছে। এবারও একই অবস্থা প্রায়। তাই আগে ভাগেই ঘরটা সরিয়ে নিয়েছি। এক বিঘা জমিতে ভুরা ছিলো। ফসলসহ পুরো জমিই পানির নিচে। প্রতিবছরই এমনটা হয়। আমরা নদী পাড়ের মানুষের কি কোন স্থায়ী আশ্রয় হবে না? সবাই আসে, দেখে যায় কাজের কাজ কিছুই হয় না।

একই এলাকার আব্দুর রশিদও এক বিঘা জমি হারিয়েছে এবার। তার জমিতে ভুট্টা ছিলো। হঠাৎ নদী ভাঙন শুরু হয়। এই বৃষ্টির ফলে নদীতে পানি বেড়ে এই অবস্থা। আমার এক বিঘা জমিতে ভুট্টা ছিলো। সেটা এই নদীতে চলে গেছে। ১০ কাঁঠা জমি হারিয়েছে একই এলাকার আব্দুল হকও। জমি গেছে তাতে কোন দুঃখ নেই। জীবন তো বেঁচে গেছে। নদী ভাঙনে বাড়ি ঘর সবই হারাতে বসেছি। জমি দিয়ে আর কি করবো। শুধু আমি না এই নদীর পাড়ে বেশিরভাগ মানুষের সহায় সম্বল হারিয়ে যাচ্ছে এই নদীর ভাঙনের কারণে।

এদিকে ভাঙন কবলীত এলাকা থেকে মাত্র ২০ ফিট দুরেই রয়েছে বাঁধ। এমন চলতে থাকলে বাঁধও নদী গর্ভে চলে যাবে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। তাদের দাবি দ্রুত সরকারিভাবে স্থায়ী কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত।

তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান জানান, পানি বৃদ্ধির কারণে তালবাড়ীয়ার ঐ এলাকা জুড়েই নদী ভাঙন দেখা দিয়েছে। বিষয়টি আমরা পানি উন্নয়ন বোর্ডকে অবগত করেছি।
কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পীযুষ কৃষ্ণ কুন্ডু জানান, গতবছর যেখানে আমরা বাধ নির্মাণ করেছিলাম তার পাশেই ভাঙন দেখা দিয়েছে। বিষয়টি আমরা শুনেছি। সরোজমিনে গিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন

আরও সংবাদ পড়ুন
All rights reserved © 2020 prothinkbd (এই সাইটের নিউজ, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া কপি করা থেকে বিরত থাকুন)
Design & Developed By: NCB IT
11223
Shares